রবিবার ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

বগুড়ায় দাদন ব্যবসায়ীর যাতাকলে পিস্ট এক বীর মুক্তিযোদ্ধার সংবাদ সম্মেলন 

নিজস্ব সংবাদদাতা, বগুড়া   বৃহস্পতিবার, ১৮ মে ২০২৩
325 বার পঠিত
বগুড়ায় দাদন ব্যবসায়ীর যাতাকলে পিস্ট এক বীর মুক্তিযোদ্ধার সংবাদ সম্মেলন 

দাদন ব্যবসায়ী চক্রের যাতাকলে পিস্ট গাবতলী উপজেলার তেলিহাটা সুখানপুকুর মোজাম্মেল হকের পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মাহফুজুর রহমান। তিনি তার স্ত্রী ও সন্তানের চিকিৎসার জন্য দাদন ব্যবসায়ী গাবতলী বাইগুনির মোঃ মুকুল হোসেন, সাহবাজপুর গোবিন্দগঞ্জের মোঃ লাভলু বেপারী, মোঃ মাহবুবুর রহমান নিকট হতে দুই লাখ টাকা গ্রহন করেন।

দাদন ব্যবসায়ীরা ঋনের বিপরীতে ২০১৬ সাল এ পর্যন্ত ২৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা জালিয়াতির মাধ্যমে আত্মসাৎ করে। ওই দাদন ব্যবসায়ী সুকৌশলে তার মুক্তিযোদ্ধার কাগজপত্রসহ সোনালী ব্যাংক সোনাতলা শাখার ১৫টি চেকের পাতায় স্বাক্ষর করে নেয়। তারপর প্রতারণা করেৃ ঋন পরিশোধের নামে ব্যাংক হতে তিন লাখ টাকা তার নামে ঋন গ্রহণ করে। পরে তারা স্বাক্ষর জাল করে ব্যাংক হতে ৭০ পাতার চেকের বই তুলে নেয়। সেই চেকের পাতা দিয়ে তার নামে থাকা মুক্তিযোদ্ধার ভাতা ও বোনাস তারা তুলে আত্মসাৎ করে। তিনি তার মুক্তিযোদ্ধার কাগজপত্র ও ব্যাংক ঋন পরিশোধের পর বর্ধিত টাকা ফেরত চাইতে গেলে দাদন ব্যবসায়ীরা তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। ইতিমধ্যে টাকার অভাবে তার স্ত্রী ও সন্তান মারা যায়। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে ধর্না দিলেও তিনি কোন প্রতিকার পায়নি।


পরবর্তীতে তারা তার স্বাক্ষর জাল করে এবং মোবাইল নম্বর বদলিয়ে তার মুক্তিযোদ্ধার ভাতা ও বোনাস তুলে আত্মসাৎ করে। পরে দাদন ব্যবসায়ীরা ব্যাংকের ব্যবস্থাপকের যোগসাজসে ব্যাংক হতে মুক্তিযোদ্ধার কাগজপত্র জমা দিয়ে ব্যাংক হতে আরো ৫ লাখ টাকা ঋন গ্রহণ করে। একই কায়দায় স্বাক্ষর জাল করে পরে এই চক্র ১০ লাখ টাকা ঋন গ্রহণ করে। এভাবে তারা পরবর্তীতে মুক্তিযোদ্ধার সার্টিফিকেট জমা দিয়ে স্বাক্ষর জাল করে সর্বমোট ২৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করে।

গত ১৩ এপ্রিল তিনি দাদন ব্যবসায়ী মুকুল ও লাভলুর কাছে তার মুক্তিযোদ্ধা সনদ ও তার ঋন পরিশোধের পর বাকি টাকা ফেরত চাইতে গেলে তারা তার নিকট হতে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এক পর্যায়ে তারা উত্তেজিত হয়ে তার গলায় ফাঁস লাগিয়ে মারপিট করে পাজাকোলা করে দোকানের বাহিরে ফেলে দিলে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে শজিমেকের কাডিওলোজি বিভাগে ভর্তি করেন।


এ ঘটনার পর হাসপাতাল হতে ফিরে তিনি নিজে বাদী হয়ে বগুড়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১১০সি /২০২৩ (সোনাতলা)। মামলা দায়েরের পর ওই দাদন ব্যবসায়ীরা প্রতিনিয়ত হুমকি ধামকি দিচ্ছে। তাদের ভয়ে তিনি বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

তিনি তার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে এবং তার মুক্তিযোদ্ধার কাগজপত্র ফেরত সহ তার নামে স্বাক্ষর জাল করে তোলা মুক্তিযোদ্ধার ভাতা বোনাস ২৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা ফেরত পেতে ভুক্তভোগী বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহফুজার রহমান ১৮ মে বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া প্রেসক্লাবে লিখিত বক্তব্য রাখেন।


তাঁর লিখিত বক্তব্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি, ডিআইজি রাজশাহী, জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপারের নিকট অনুরোধ জানান। সাংবাদিক সম্মেলনে তার প্রতিবন্ধী ছেলে ও মেয়ে উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments Box

Posted ১০:৫৯ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৮ মে ২০২৩

Alokito Bogura || Online Newspaper |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০

উপদেষ্টা:
শহিদুল ইসলাম সাগর
চেয়ারম্যান, বিটিইএ

প্রতিষ্ঠাতা ও প্রকাশক:
এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ
বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ
সহ-বার্তা সম্পাদক: মোঃ সাজু মিয়া

বার্তা, ফিচার ও বিজ্ঞাপন যোগাযোগ:
+৮৮০ ৯৬ ৯৬ ৯১ ১৮ ৪৫
হোয়াটসঅ্যাপ ➤০১৭৫০ ৯১১ ৮৪৫
ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।
তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
error: Content is protected !!