বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:১৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
জয়পুরহাট-২ আসনের সংসদ ও হুইপ আবু সাঈদ এমপির আগমনে শিবগঞ্জে আনন্দ মিছিল বগুড়ার শিবগঞ্জে সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ২ গ্রুপ এর মধ্যে সংঘর্ষ যুবলীগ নেতা লিটন সহ ১০ জন আহত কাহালুতে মাস্ক না পরায় ভ্রাম্যমান আদালতে ৮ জনের জরিমানা দ্বিতীয় ধাপে ১৬ জানুয়ারি ৬১ পৌরসভায় ভোট গ্রহণ !! কাহালুতে আমন ধান কাটা-মাড়াই করতে ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষাণ-কৃষাণীরা বগুড়ায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় ১ জন নিহত !! ময়মনসিংহে সপ্তম শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে নিয়ে উধাও দপ্তরি ! সারিয়াকান্দিতে চরাঞ্চলের ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়া রসাতলে শিবগঞ্জের বুড়িগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সংগ্রহ ও ফরম বিতরণ বগুড়ার আদমদীঘির নাগরনদে অবৈধ বালু উত্তোলন, ভ্রাম্যমান আদালতে দুই জনের কারাদন্ড

একজন স্টেশন মাস্টার দিয়ে চলানো হচ্ছে ৩টি রেল স্টেশন; যাত্রীরা পাচ্ছে না কাঙ্খিত সেবা

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার বৃহৎ রেলওয়ে জংশন স্টেশনসহ তিনটি রেল স্টেশনের কার্যক্রম চালানো হচ্ছে এক স্টেশন মাস্টার দিয়ে। ফলে যাত্রী সাধারণ অনেক সময় পাচ্ছেন না স্টেশন মাস্টারের কাঙ্খিত সেবা। এতে নানা মুখি সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে বলে ভোক্তভুগিদের অভিযোগ। তারা দ্রত এই বৃহৎ জংশন স্টেশনে একজন স্থায়ী স্টেশন মাস্টার নিয়োগ দেয়ার দাবী জানান।

জানা যায়, উত্তরবঙ্গের মধ্যে ঐতিহ্যবাহি ও বৃহৎ রেলওয়ে জংশন স্টেশন আদমদীঘির সান্তাহার রেলওয়ে স্টেশনে এখনো অবকাঠামো উন্নয়নসহ আধুনিকতার কোন ছোঁয়াই লাগেনি। এই স্টেশন দিয়ে প্রতিদিন ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী, টিলাহাটী, দিনাজপুর, পার্বতীপুরসহ বিভিন্ন স্থানে ব্রডগেজ ও মিটারগেজ মিলে প্রায় অর্ধ শতাধিক ট্রেন চলাচল করে।

নওগাঁ জেলার ১১টি উপজেলা, বগুড়া ও জয়পুরহাট জেলার কয়েকটি উপজেলার যাত্রীরা এই সান্তাহার রেলওয়ে জংশন স্টেশন দিয়েই চলাচল করে। কিন্তু মাত্র একজন স্টেশন মাস্টার দিয়ে চালানো হচ্ছে জয়পুরহাট স্টেশন, সান্তাহার স্টেশন ও তিলকপুর বন্ধ ষ্টেশন। এতে ট্রেনের যাত্রী সাধারন অনেক সময় পাচ্ছে না ষ্টেশন মাষ্টারের কাঙ্খিত সেবা। যার কারণে স্টেশন গুলোর প্রশাসনিকসহ স্বাভাবিক কার্যক্রম অনেকটাই ব্যাহত হচ্ছে।

জয়পুরহাট স্টেশন মাষ্টার হাবিবুর রহমান হাবিবকে গত ২৪ অক্টোবর থেকে আদমদীঘির সান্তাহার বৃহৎ রেলওয়ে জংশন স্টেশানে (অতিরিক্ত দায়িত্ব) স্টেশন মাস্টার হিসাবে দেয়া হয়েছে। এই দুই গুরুত্বপূর্ন স্টেশান মাস্টারের পাশাপাশি তাকে তিলকপুর বন্ধ স্টেশানেরও দায়িত্ব দেয়া হয়। একই স্টেশন মাস্টার জয়পুরহাট, সান্তাহার ও তিলকপুর স্টেশনের দায়িত্বে থাকায় ট্রেন যাত্রীরা অনেক সময় পাচ্ছেন না স্টেশন মাস্টারের সেবা। এছাড়া স্টেশনের প্রশাসনিক কার্যক্রম ব্যাহতসহ হচ্ছে নানা জটিলতা।

সান্তাহার রেলওয়ে স্টেশন মাষ্টার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, জনবল সংকটের কারণে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ৩টি ষ্টেশনের দায়িত্ব পালনে অনেকটাই হিমশিম খেতে হয়। তবুও সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালনে চেষ্টা করে আসছি।

রাজশাহী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) নাসির উদ্দিন সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে জনবল সংকটের কারণেই আপাতত এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ।

সংবাদটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আলোকিত বগুড়া সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক বগুড়া থেকে প্রকাশিত
error: Content is protected !!