সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সোনাতলায় রাতারাতি তৈরি হযরত শাহ সুলতান বলখী (রঃ) এর মাজার

রিমন আহম্মেদ বিকাশ, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার   মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট ২০২১
42 বার পঠিত
সোনাতলায় রাতারাতি তৈরি হযরত শাহ সুলতান বলখী (রঃ) এর মাজার

বগুড়া সোনাতলা উপজেলার দিগদাইড় ইউনিয়নের মহিচরন দক্ষিণপাড়া (ছেওটাপাড়া) গ্রামের গৃহবধু জেলি বেগম স্বপ্নের মাধ্যমে নির্দেশনা পেয়ে রাতারাতি হযরত শাহ সুলতান বলখি (র:) এর মাজার তৈরি করেছে। জেলি বেগম ওই গ্রামের নুর ইসলামের স্ত্রী। তিনি গত শুক্রবার(২৭ আগস্ট) হঠাৎ করে ইট-সিমেন্ট দিয়ে রাতারাতি মাজার তৈরি করে ভক্তদের জিকির আসকার করছেন।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, জেলি বেগম বগুড়া শহরে বেদগাড়ী একটি মেসে ১০ বছর যাবৎ রান্নার কাজ করে আসছিল। হঠাৎ করে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং দিন রাত জিকির আজগার নিয়ে ব্যস্থ থাকেন। হঠাৎ তিনি স্বপ্নে দেখেন সুলতান বলখী (র) তাকে বলছেন, তুই আমার মেয়ে। তোর বাড়ির সামনে আমি শুয়ে আছি। আমার কবরটা ইট দিয়ে ভালো করলে তুই সুস্থ হয়ে যাবি। যদি না দিস তাহলে তুই কখনোই সুস্থ হতে পারবি না। এ রকম নির্দেশনা পেয়েই জেলি বেগম শুক্রবার রাতের মধ্যেই মাজারটি তৈরি করেন। এরপর থেকেই তিনি নাকি সম্পুর্ণ সুস্থ হয়ে গেছেন। কোন প্রকার ডাক্তার দেখানো এবং ঔষধ সেবন ছাড়াই। এই সব আজগুবি ও অবাস্তব কথাগুলো গড়গর করে বলেছিলেন জেলি বেগম। তার সাথে সুর মিলিয়ে একই কথা বলছেন স্বামী নুর ইসলাম। শুধু তাই না তিনি নামাজের মধ্যে দেখতে পান বাবা শাহ সুলতান বলখী(রঃ)কে। বাবা নাকি জুব্বা পড়ে পাগরি মাথায় লম্বা দাড়ি ওয়ালা ছিলেন। বাবাকে দেখার পরই নাকি তার মাথার সমস্ত চুল জট বেধে যায়।


জেলির বাড়ি ভিতরে ঢুকতেই দেখা যায়,কর্পূর বাজার এলাকার কোয়ালীকান্দি গ্রামের আঃ সামাদ বাড়ির একটি ঘরে বসে জিকির করছে।

এ ব্যাপারে এলাকা বাসি আমিনুল ইসলাম বলেন, হুট করে এখানে আমরা দেখি একটি মাজার। আমরা ছোট থেকে বড় হলাম কখনো এখানে মাজার বা কাহারো কোন করব দেখিনি।


বিষয়টি নিয়ে পাশের গনিয়ারিকান্দি গ্রামের বায়তুল মামুর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা রেজাউল করিম এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, ধর্মকে সামনে রেখে মাজার ব্যবসা ইসলামে জায়েজ নেই। এটি অন্যায় ও অপরাধ। মাজারকে কেন্দ্র করে সেজদা দেওয়া শিরক। আমরা কখনোই দেখিনি যে, ওখানে মাজার আছে। এইটি সম্পুর্ণ ইসলামের শরিয়ত পরিপন্থি”।

এ ব্যাপারে দিগদাইড় ইউপি চেয়ারম্যান আলী তৈয়ব শামিম মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।


এ ব্যাপারে সোনাতলা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম রেজা বলেন বিষয়টি শুনেছি, যাছাই বাছাই করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া আফরিনের কাছে এই ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান, ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। যাচাই বাছাই করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

Facebook Comments Box

Posted ৮:৩১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট ২০২১

Alokito Bogura। সত্য প্রকাশই আমাদের অঙ্গীকার |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  

সম্পাদক ও প্রকাশক:

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

০১৭৫০ ৯১১৮৪৫, ০১৬১০ ৯১১৮৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
''আলোকিত বগুড়া'' সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক বগুড়া থেকে প্রকাশিত।
error: Content is protected !!