শুক্রবার ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সোনাতলায় নকল পাওয়ায় পরীক্ষার্থীকে বহিস্কারের জেরে কক্ষ ভাংচুর, পুলিশের লাঠিচার্জ; কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি

আব্দুর রাজ্জাক, সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি   বুধবার, ০৩ মে ২০২৩
158 বার পঠিত
সোনাতলায় নকল পাওয়ায় পরীক্ষার্থীকে বহিস্কারের জেরে কক্ষ ভাংচুর, পুলিশের লাঠিচার্জ; কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি

বগুড়ার সোনাতলা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে নকল করায় সোনাতলা মডেল সরকারী স্কুল এন্ড কলেজের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কেন্দ্র সচিব মনোয়ারুল ইসলাম জানান, বুধবার বেলা ১২টায় জেলা প্রশাসক এর প্রতিনিধি হিসেবে পরীক্ষা কেন্দ্রে জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা এ.এস.এম কাউছার রহমান পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তিনি কেন্দ্রের বাথরুমে সরকারী সোনাতলা মডেল স্কুল এন্ড কলেজের দুই পরীক্ষার্থীকে দেখতে পায়। জিজ্ঞাবাদ ও সার্চ করে কবির সরকার কনক নামের পরীক্ষার্থীর পকেটে নকল পাওয়ায় তাকে বহিষ্কার করেন।


পরীক্ষা শেষে এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে পরীক্ষা কক্ষ ভাংচুর করেন তার সহপাঠীরা। এসময় তারা কেন্দ্র সচিবকে লক্ষ করে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন।

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন আমরা শান্তি পুর্ণভাবে কেন্দ্র ত্যাগ করেছিলাম। হঠাৎ অতর্কিত ভাবে এখানে দায়িত্ব থাকা পুলিশ সদস্য আমাদের দুই সহপাঠীকে লাঠিচার্জ করেন। আমরা এঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে কেন্দ্রের বাহিরে অবস্থান নেই। কেবা কাহারা কক্ষ ভাংচুর করেছে আমরা তা জানি না।


এদিকে স্কুল শিক্ষক বলেন আমাদের পরীক্ষা কেন্দ্রের ৫টি কক্ষের ১০টি ফ্যান দুটি দরজা ও বাথরুমের পানির ট্যাপ ভাংগা হয়েছে।

মূহূর্তেই খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাঈদা পারভীন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কুরশিয়া আকতার ও থানা অফিসার ইনচার্জ সৈকত হাসান ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।


এসময় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত ডাক্তার সহিদুল ইসলাম দুই পরীক্ষার্থীর কোন ইঞ্জুরী না থাকায় প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেন। এরপর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওই প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলামের জিম্মায় ওই দুই পরীক্ষার্থীকে হস্তান্তর করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাঈদা পারভীন বলেন, খবর পেয়ে সাথে সাথে ঘটনাস্থলে আসি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। এবং কেন্দ্রের সামনে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে বাসায় যেতে বলি।

কেন্দ্র সচিবকে অব্যহতির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন রাজশাহী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তাকে অব্যহতি দিয়েছেন। এবং তার পরিবর্তে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রবিউল ইসলামকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ সৈকত হাসান বলেন লাঠিচার্জের কোন ঘটনা ঘটেনি। আমরা শুধু উত্তেজিত শিক্ষার্থীদের নিবৃত্ত করেছি।

Facebook Comments Box

Posted ৯:১৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৩ মে ২০২৩

Alokito Bogura || আলোকিত বগুড়া |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

উপদেষ্টা:
শহিদুল ইসলাম সাগর
চেয়ারম্যান, বিটিইএ

প্রতিষ্ঠাতা ও প্রকাশক:
এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ
বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ
সহ-বার্তা সম্পাদক: মোঃ সাজু মিয়া

বার্তা, ফিচার ও বিজ্ঞাপন যোগাযোগ:
+৮৮০ ৯৬ ৯৬ ৯১ ১৮ ৪৫
হোয়াটসঅ্যাপ ➤০১৭৫০ ৯১১ ৮৪৫
ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।
তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
error: Content is protected !!