বৃহস্পতিবার ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সোনাতলায় পৌর নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার মামলায় গ্রেফতার মেয়র নান্নু

রিমন আহম্মেদ বিকাশ, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার   সোমবার, ০৮ নভেম্বর ২০২১
460 বার পঠিত
সোনাতলায় পৌর নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার মামলায় গ্রেফতার মেয়র নান্নু

বগুড়ার সোনাতলা পৌরসভার মেয়র জাহাঙ্গীর আলম নান্নু গ্রেফতার হয়েছেন। রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বগুড়া জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) ও সোনাতলা থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে রাজধানীর মহাখালী এলাকা থেকে জাহাঙ্গীর আলম নান্নু গ্রেফতার হন। আজ সোমবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনাতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম রেজা।


ওসি রেজাউল করিম বলেন, গ্রেফতারকৃত মেয়র সোনাতলা উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিনহাদ্দুজামান লীটনসহ চার নেতাকর্মীকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় প্রধান আসামি। এই নিয়ে ওই মামলায় মোট ৬ জন আসামি পুলিশের হাতে ধরা পড়ল। মেয়র নান্নুকে আজ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সোনাতলা পৌরসভা নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। মেয়র নান্নু জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন। তবে নৌকার বিরুদ্ধে নির্বাচনে অংশ নেয়ায় ভোটের আগের দিন ১ নভেম্বর তাকে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।


জানা যায়, পৌর নির্বাচনের পরের দিন ৩ নভেম্বর দুপুরে উপজেলার মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড এলাকায় এক হামলায় মেয়র নান্নুর কর্মীদের হাতে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের ৪ নেতাকর্মী ছুরিকাহত হন। এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগাঠনিক সম্পাদক নবীন আনোয়ার কমরেড বাদী হয়ে থানায় ৩০জনের নামে মামলা করে মামলায় জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু প্রধান আসামি ছিলেন। মামলা দায়ের পর ওই রাতেই পুলিশ এজাহার ভুক্ত ৫ জনকে গ্রেফতার করে। তবে মামলার প্রধান অভিযুক্ত মেয়র নান্নু পলাতক ছিলেন। পরে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে তার অবস্থান নিশ্চিত করে ঢাকার বনানী থানার অন্তর্গত মহাখালী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ডিবি ও সোনাতলা পুলিশ।

প্রসঙ্গত; গত ২ নভেম্বর মঙ্গলবার পৌর নির্বাচন চলাকালিন দুই ভোটারের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পরের দিন ৩ নভেম্বর বুধবার সোনাতলা প্রেসক্লাব রোডে আবারও ওই দুই ভোটারের মধ্যে মুখোমুখি দেখা হলে পুনরায় কথা কাটাকাটি হয়। ঘটনাটি পরবর্তীতে সহিংসতার রূপ নেয়। এ সময় মাইক্রোস্যান্ডে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. মিনহাদুজ্জামান লীটন স্থানীয় কয়েকজনকে নিয়ে চা পান করছিলেন। সেখানে প্রতিপক্ষের মারপিটে লীটন, সোহেল, জিতু ও উৎপল কর্মকার আহত হন। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। খরব পেয়ে সেখানে পুলিশ ও বিজিবি এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। পরে এ ঘটনায় মামলা করা হয়।


Facebook Comments Box

Posted ১:৫৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৮ নভেম্বর ২০২১

Alokito Bogura। Online Newspaper |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  

সম্পাদক ও প্রকাশক:

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

অস্থায়ী অফিস:

তালুকদার শপিং সেন্টার (৩য় তলা),

নবাববাড়ি রোড, বগুড়া-৫৮০০।

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

মুঠোফোন: ০১৭ ৫০ ৯১১ ৮৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।
তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
error: Content is protected !!