বৃহস্পতিবার ১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সারিয়াকান্দিতে মরিচের ফলন ভালো হলেও দাম না থাকায় হাসি নেই চাষীদের মুখে

সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধি   শনিবার, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২২
95 বার পঠিত
সারিয়াকান্দিতে মরিচের ফলন ভালো হলেও দাম না থাকায় হাসি নেই চাষীদের মুখে

সারিয়াকান্দির চর শালুকা গ্রামে পাকা মরিচ শুকাচ্ছেন এক গৃহিনী। ছবি- আলোকিত বগুড়া।

বগুড়ার সারিয়াকান্দি চরাঞ্চলে মরিচের ফসল ভালো হয়েছে। তবে বাজারে চাহিদা ও দাম কম থাকায় চাষীদের মুখে হাসি নেই এবার। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার সবচেয়ে মরিচ চাষ হয়ে থাকে সারিয়াকান্দির চরাঞ্চলে। চরের উর্বর পলিমাটিতে চাষীরা অধিকহারে চাষ করে থাকেন মরিচের আবাদ। প্রতি বছর মরিচ বিক্রি করে মোটা অংকের টাকা ঘরে তোলেন তারা। এ ফসলটি এখানকার চাষীদের কাছে অর্থকরী ফসল হিসেবে পরিচিত। প্রতি বছর চরের চাষীরা মরিচ বিক্রি করে জায়গা-জমি ক্রয় করা ছাড়াও ব্যাংকে টাকা জমা রাখেন। কিন্তু এ বছর মরিচের চাষ করে তাদের মুখে হাসি মলিন হয়ে গেছে। তারা জানান বিগত ৬/৭ বছরের মধ্যে মরিচের বাজারে এবার ধ্বস নেমেছে।

উপজেলা কৃষি অফিস জানায়, সারিয়াকান্দির চরাঞ্চলে এবার মরিচের চাষ হয়েছে ৩ হাজার ৬২০ হেক্টর জমি। মাটিতে উর্বরতা ও আবহাওয়া ভালো থাকায় ফলন হয়েছে ভালো। প্রতি বিঘা জমি থেকে দেশী মরিচ ৩০ থেকে ৩৫ মণ ও হাইব্রিড ৫০ থেকে ৬০ মণ করে কাঁচা মরিচ ঘরে তুলছেন চাষীরা। ফলন ভালো হলেও বাজারে মরিচের দাম হতাশাজনক।


কর্ণিবাড়ী ইউনিয়নের মূলবাড়ী চরের মরিচ চাষী মজনু মিয়া বলেন, আমি আড়াই বিঘা জমিতে এবার মরিচের চাষ করেছি। ফলন ভালো হলেও বাজারে এর দাম নেই। শুকনা মরিচের দামতো একেবারেই নেই। গত বছর এসময় শুকনো মরিচের দাম ৭ থেকে ৮ হাজার টাকা মণ দরে বিক্রি হলেও এবার সেখানে দাম মাত্র সাড়ে ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা। এ দামে মরিচ বিক্রি করে আমাদের তেমন একটা লাভ থাকছেনা।

বাটিয়া চরের চাষী শামছুল আলম বলেন, আমি জমি বর্গা নিয়ে ২২ বিঘা জমিতে মরিচের চাষ করেছি। জমি থেকে মরিচ তোলাও শুরু হয়েছে। কিন্তু বাজারে দাম নেই। কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে ৭ থেকে ৮’শ টাকা আর পাকা মরিচ বিক্রি হচ্ছে হাজার থেকে ১১’শ টাকা মণ দরে। মরিচ চাষে উৎপাদন খরচ অনেক বেশি। এ দামে মচির বিক্রি করে আমার উৎপাদন খরচই উঠছেনা।


উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল হালিম বলেন, দাম একটু কম হলেও ফলন হয়েছে ভালো। হয়তোবা লাভ বেশি হচ্ছেনা তবে ক্ষতির মুখেও পরেনি মরিচ চাষীরা।

Facebook Comments Box


Posted ৪:৪৬ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২২

Alokito Bogura। Online Newspaper |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

সম্পাদক ও প্রকাশক:

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

অস্থায়ী অফিস:

তালুকদার শপিং সেন্টার (৩য় তলা),

নবাববাড়ি রোড, বগুড়া-৫৮০০।

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

মুঠোফোন: ০১৭৫০ ৯১১ ৮৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।
তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
error: Content is protected !!