শুক্রবার ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সারিয়াকান্দিতে উদ্ধার হওয়া তরুণীকে মায়ের হাতে তুলে দিলেন স্থানীয় সাংসদ ও ইউএনও 

জাহাঙ্গীর আলম, সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধি   মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১
171 বার পঠিত
সারিয়াকান্দিতে উদ্ধার হওয়া তরুণীকে মায়ের হাতে তুলে দিলেন স্থানীয় সাংসদ ও ইউএনও 

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে উদ্ধার হওয়া তরুণীকে মায়ের হাতে তুলে দিলেন স্থানীয় সংসদ সাহাদারা মান্নান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়া। ঈদের পর দিন বৃহস্পতিবার সারিয়াকান্দি উপজেলার কামালপুর ইউনিয়নের কড়িতলা বাজার থেকে তরুণীকে উদ্ধার করেন চন্দনবাইশা ইউনিয়ন আনসার প্লাটুন কমান্ডার মো: মিলন মিয়া। উদ্ধারকৃত তরুণীর নাম জুলিয়া আকতার জুলি (১৬)। মেয়েটি দীর্ঘদিন থেকে মানসিক ভারসাম্যহীনতায় ভুগছিলেন।

আনসার প্লাটুন কমান্ডার মো: মিলন মিয়া জানান, ঈদের পরদিন বৃহস্পতিবার সন্ধা ৭টার দিকে মেয়েটি কড়িতলা বাজার এলাকায় উদ্দেশ্যহীনভাবে ঘুরাঘুরি করছিলেন। এমন সময় কয়েক যুবক ভিন্ন মনমানসিকতা নিয়ে তার পিছু নেয়। বিষয়টি টের পেয়ে ওই মিলন মিয়া পিছু নেওয়া যুবকদের ছবি তুলে রাখতে চাইলে যুবকরা মেয়েটিকে রেখে সটকে পরে। এর পর মিলন মিয়া সারিয়াকান্দি থানা পুলিশকে ফোন করে ঘটনাটি বলেন। কিন্তু থানা পুলিশ মেয়ে পুলিশ না থাকায় মেয়েটিকে উদ্ধারে অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে মিলন মিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়ার কাছে ফোন করে ঘটনাটি অবহিত করেন।


তৎক্ষনাৎ ইউএনও ও স্থানীয় সাংসদ সাহাদারা মান্নান ঘটনাস্থলে যান এবং মেয়েটির সাথে দেখা করে খাবারের ও আনসার কমান্ডার মিলনের হেফাজতে থাকার ব্যবস্থা করেন। তরুণীটি উদ্ধার হওয়ার পর থেকেই প্রিন্ট ও সোস্যাল মিডিয়ায় অভিভাবকের সন্ধানে খবর প্রচার হয়। সর্বশেষ গত সোমবার ইনডিপেনডেন্ট টিভির বিকাল ৪টায় সমগ্র বাংলাদেশ খবরে প্রচারিত হওয়ার পর ঢাকার উত্তরায় থাকা অভিভাবকদের নজরে আসে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়া জানান, খবর প্রচারিত হওয়ার আধা ঘন্টার মধ্যে অভিভাবকের পক্ষ থেকে ফোন আসে এবং রাতে রাতেই মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণীটির মা মোছা: জাহানারা বেগম রাত ৩টার দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আসেন। অবশেষে আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে স্থানীয় সাংসদ সাহাদারা মান্নান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়া তরুণীটির মা মোছা: জাহানারা বেগমের হাতে তুলে দেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ে এই হস্থান্তর অনুষ্ঠিত হয়।


এ সময় সাংসদ পুত্র মো: সাখাওয়াত হোসেন সজল, উপজেলা কৃষি অফিসার আব্দুল হালিম, সমাজসেবা অফিসার মো: নাইম হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

মা জাহানারা বেগম বলেন, মেয়েটি কোনদিন স্কুলে যায়নি এবং জন্মে পর থেকেই মানসিক ভারসাম্যহীনহায় ভুগছিল। উত্তরা তুরাগ থানা, ডাকঘর-নিশাদ নগর, গ্রাম-রানাতলা এলাকার তার বাবা মেয়েটির জন্মে পর পরেই তাকে রেখে চলে যায়।


Facebook Comments Box

Posted ১২:১৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১

Alokito Bogura। সত্য প্রকাশই আমাদের অঙ্গীকার |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  

সম্পাদক ও প্রকাশক:

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

০১৭৫০ ৯১১৮৪৫, ০১৬১০ ৯১১৮৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।। তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
''আলোকিত বগুড়া'' সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক বগুড়া থেকে প্রকাশিত।
error: Content is protected !!