সোমবার ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সারিয়াকান্দিতে অনিশ্চয়তায় কোরবানীর পশুর হাট; খামারীদের কপালে ভাজ

জাহাঙ্গীর আলম, সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধি   রবিবার, ১১ জুলাই ২০২১
208 বার পঠিত
সারিয়াকান্দিতে অনিশ্চয়তায় কোরবানীর পশুর হাট; খামারীদের কপালে ভাজ

ফাইল ছবি- আলোকিত বগুড়া

বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌর এলাকার কুঠিবাড়ী গ্রামের আমছার আলী (৬০) ও তাঁর স্ত্রীর সাহিদা বেগম (৫০)। দুই ছেলে এক মেয়ে নিয়ে তাদের সংসার। জমি-জমা যমুনা নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার পর সংসার চালানো কঠিক হয়ে পরে। তবে রিক্সা-ভ্যান কেনার পর তা চালিয়ে দু’মুঠো ডাল ভাত ছেলে-মেয়েদের মুখে তুলে দেন তিনি। সারিয়াকান্দি ছোট্ট পৌর শহরে রিক্সা চালিয়ে দৈনিক যে রোজগার হয়, তা দিয়ে সংসারের চাহিদা মোটেই পুরন হয় না। ধার-দেনা, এনজিওদের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে সংসারের ঘানী টানেন তিনি।

কোরবানী উপলক্ষ্যে প্রতি বছর ১টি করে ষাড় গরু লালন পালন করে থাকেন। কোরবানীর সময় সে পশুটি বিক্রি করে মোটা টাকা হাতে পান তিনি। এ টাকা পেয়ে ধার-দেনা ও এনজিও ঋণ শোধ করতে পারলেও এবার করোনার কারনে দেশ জুড়ে চলমান লক ডাউনে তার পালিত ষাড়টি কোরবানীর হাটে তুলতে পারছেন না। ফলে আমছার আলী চোখে মুখে এখন শর্ষের ফুল দেখছেন।


রিক্সা-ভ্যান চালক আমছার আলী বলেন, আমি প্রায় ২৪ বছর ধরে বছরে একটি করে ষাড় গরু পালন করে আসছি। কোরবানীর সময় হাটে পালিত ষাড়টি বিক্রি করতে পারলে মোটা টাকা ঘরে আসত আমার। চলমান লক ডাউনের কারনে গরুটি এখন আমি হাটে তুলতে পারছি না। তবে কয়েকজন ক্রেতা বাড়ীতে এসে ষাড়টির দাম ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা বলেছেন। কোরবানীর হাটে তুলতে পারলে গরুটির দাম প্রায় আড়াই লক্ষ টাকা পেতাম। এ কারনে আমি এখন গরুটির ন্যায্য দাম পাওয়া নিয়ে দুঃচিন্তায় আছি।

এছাড়াও সারিয়াকান্দি উপজেলার প্রায় ৪৫ হাজার গরু লালন-পালন করে কোরবানীর জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। খামারী ও সেসব গরুর মালিকরা কোরবানীর জন্য প্রস্তুতকৃত গরু হাটে তুলতে না পেরে হতাশায় ভুগছেন।


ফুলবাড়ী ইউনিয়নের ছাগলধরা গ্রামের গরুর খামারী মিল্লাত হোসেন বলেন, আমার খামারে ১২টি কোরবানীর গরু থাকলেও হাটে তুলতে পারছি না। এখন আমি কি করব ভেবেও কোন কূল-কিনারা পাচ্ছিনা।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা: মো: নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, আমি ইউএনও সাহেবকে কোরবানীর হাটের জন্য স্বাস্থ্য বিধি মেনে হাট চালু রাখার জন্য অনুরোধ করেছি। আশা করছি কোরবানীর জন্য হাট চালু হয়ে গেলে উপজেলার খামারীরা ও কোরবানীর জন্য গরু লালন-পালনকারীরা তাদের কোরবানীর পশুর ন্যায্য মূল্য পাবেন।


উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়া বলেন, চলমান লকডাউনতো কোন এলাকাভিত্তিক না। উপরের নির্দেশনা অনুযায়ী বিশেষ ব্যবস্থায় যথাযথ ভাবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে কোরবানির পশুর হাট চলতে পারে।

Facebook Comments Box

Posted ১০:৩৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১১ জুলাই ২০২১

Alokito Bogura। সত্য প্রকাশই আমাদের অঙ্গীকার |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

সম্পাদক ও প্রকাশক:

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

০১৭ ৫০ ৯১ ১৮ ৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।। তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
''আলোকিত বগুড়া'' সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক বগুড়া থেকে প্রকাশিত।
error: Content is protected !!