শনিবার ২রা জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

বাবার লাশ বাড়িতে রেখে এইচএসসি পরীক্ষা দিলেন ছেলে

মোঃ নুরনবী সরকার, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১
97 বার পঠিত
বাবার লাশ বাড়িতে রেখে এইচএসসি পরীক্ষা দিলেন ছেলে

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলায় বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা কেন্দ্রে অশ্রুসজল চোখে পরীক্ষা দিলেন মেরাজ হক নামের এক শিক্ষার্থী। মেরাজের বাড়ী উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের হকটারী গ্রামে। সে ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজের ছাত্র। তার বাবার নাম শরিফুল হক মিল্টন (৪৮)। তিনি বুধবার মধ্য রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নিজ বাড়িতে মারা যান ।

আজ বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) উপজেলার সাইফুর রহমান সরকারি কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রে এমন দৃশ্য দেখা যায়।


স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার মধ্যরাতে উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের হকটারী গ্রামে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মেরাজের বাবা শরিফুল হক মিল্টন। আজ বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) এইচএসসি পরীক্ষা দিতে উপজেলার সাইফুর রহমান সরকারি কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রে যান। শেষ পর্যন্ত বাবার লাশ বাড়িতে রেখে অশ্রুসজল চোখে পরীক্ষা দিলেন মেরাজ হক নামের ওই শিক্ষার্থী।

পরীক্ষার অংশ নিতে গিয়ে মেরাজ এক হাতে চোখ মুছেছেন, অন্য হাতে কলম দিয়ে লিখছেন পরীক্ষার খাতায়। মাঝে মধ্যেই ফুঁপিয়ে কেঁদেও উঠেছেন।


পরীক্ষা কেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার পরীক্ষা কেন্দ্রের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই তাদের অভিভাবককে নিয়ে আসেন। মেরাজ হক আসেন তার খালু পলাশ হোসেনকে নিয়ে। পরীক্ষার্থীর মেরাজের চোখে জল দেখে অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন। কেউ কেউ কান্নার কারণও জানতে চেয়েছেন। এর কিছুক্ষণ পর ছড়িয়ে যায় মেরাজের বাবা মারা যাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে সহপাঠীরা তাকে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করেন। পরে মেরাজ পলীক্ষার হলে গিয়ে বসেন।

মেরাজের সহপাঠী রবিউল ইসলাম বলেন, মেরাজ হক পরীক্ষা দিতে গিয়ে বাবার শোকে পুরো সময়ই কেঁদেছে আর লিখেছে খাতায়। আর এ দৃশ্য দেখে তার সহপাঠী, শিক্ষকরা শোকাহত হয়েছেন।


মেরাজের খালু পলাশ হোসেন জানান , বধুবার রাত ১২টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মেরাজের বাবা বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন। বাবাকে হারানোর পর ভেঙে পড়লেও কাঁদতে কাঁদতে পরীক্ষার হলে আসেন মেরাজ হক। আড়াইটার দিকে মেরাজের বাবার লাশ পারিবারিক ভাবে দাফন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রতিবেশী অাব্দুর রহমান আলোকিত বগুড়ার প্রতিবেদককে বলেন, শরিফুল হক মিল্টন তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বড়ভিটা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থী হিসেবে মোরগ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছেন। নির্বাচনে তার অনেক টাকা ব্যায় হয়েছে। অামিও তার সমর্থক হয়ে কাজ করেছি। অামরা এলাকাবাসী ধারনা করছি নির্বাচনে অনেক টাকা ব্যায় করে পরাজিত হয়ে মানসিক হতাশায় ভুগে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এতে করে তার পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তার এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছেলে মেরাজ বাবার লাশ বাড়িতে রেখে চোখের পানি মুছতে মুছতে পরীক্ষা দিতে গেছেন।

সাইফুর রহমান সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ও পরীক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব মো.রফিকুল ইসলাম আলোকিত বগুড়ার প্রতিবেদককে জানান, পরীক্ষার্থী মেরাজ হকের বাবার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা শুনেছি। আমরা তাকে সান্ত্বনা দিয়ে পরীক্ষা দিতে উৎসাহ দিয়েছি। তবে তার জন্য কোনো বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। সে সবার সঙ্গে স্বাভাবিকভাবেই পরীক্ষা দিয়েছে।

Facebook Comments Box

Posted ৮:১৫ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১

Alokito Bogura। Online Newspaper |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

সম্পাদক ও প্রকাশক:

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

অস্থায়ী অফিস:

তালুকদার শপিং সেন্টার (৩য় তলা),

নবাববাড়ি রোড, বগুড়া-৫৮০০।

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

মুঠোফোন: ০১৭ ৫০ ৯১ ১৮ ৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com

বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন কর্তৃক নিবন্ধিত।
তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
error: Content is protected !!