রবিবার ২৫শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ধুনটে জলমহাল সন্ত্রসীদের দখলে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

স্টাফ রিপোর্টার, আলোকিত বগুড়া   রবিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২১
141 বার পঠিত
ধুনটে জলমহাল সন্ত্রসীদের দখলে রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

উচ্চ আদালতের আদেশ অমান্য করে বগুড়ার ধুনট উপজেলার টেংরাখালি জলমহাল অবৈধ ভাবে দখল করে দুই মাসে লাখ লাখ টাকার মাছ ধরে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে একটি প্রভাবশালী মহলের বিরুদ্ধে। এতে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন পারলক্ষীপুর সুলতানহাটা মৎস্যবিজি সমিতি সদস্যরা।

পারলক্ষিপুর সুলতানা হাটা মৎস্যজিবি সমিতির সভাপতি জানান, ১৪২৪-২৯ বঙ্গাব্দ মেয়াদে টেংরাখালি জলমহালটি পেঁচিবাড়ি মালোপাড়া ধীবর মৎস্যজিবি সমবায় সমিতিকে লীজ দেওয়া হয়। এরপর পেঁচিবাড়ি মলোপাড়া মৎস্যজিবি সমিতি ওই জলমহলটি জনৈক এক ব্যাক্তিকে সাবলীজ দেয়। বিষয়টি অবৈধতা চ্যালেঞ্জ করে টেংরাখালী মৎস্যজিবি সমিতির সভাপতি নিমাই হাওয়ালদার হাই কোটে ৭৬৪৩/২০১৭ নং মামলা করে। ওই মামলার আদেশে বগুড়া জেলা প্রশাসক ২০১৯ সালের ২৩ জুন সরেজমিনে তদন্ত করে সাবলীজ প্রমান পেয়ে পান এবং একই বছর ১১ জুলাই জেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় টেংরাখালি জলমহলের লীজ বাতিল সহ জামানতের টাকা বাজেয়াপ্ত করেন।

এরপর পেঁচিবাড়ি মালোপাড়া মৎস্যজিবি সমবায় সমিতির পক্ষে বগুড়া জেলা প্রশাসক সহ ১০ জনকে বিবাদী করে বগুড়া সহকারী জজ আদালতে ২৮০/১৯ অন্য একটি মামলা করেন। ওই মামলা হাইকোট স্থগিতাদেশ দেওয়ায় সরকারী স্বার্থ রক্ষার জন্য গত ১১/১১/২০২০ ইং তারিখে ধুনট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের ৭৮১ নং স্বারক মুলে টেংরাখালি জলমহালের খাস আদায় করার জন্য পারলক্ষীপুর সুলতান হাটা মৎস্যজিবি সমিতিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

শাহ আলম আরো বলেন, আমি সরকারের কোষাগারে টাকা জমা করে দায়িত্ব পালন করি। একপর্যায়ে পেঁচিবাড়ি মালোপাড়া সমিতির পক্ষে ১৩/১২/২০২০ তারিখে বগুড়া জেলা জজ আদালত ১৩৮/২০১৯ মিস আপীল মামলার অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখায় স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল আমার সমিতির অনুকুলে বরাদ্দ পাওয়া টেংরাখালি জলমহালটি অবৈধ ভাবে দখল করে। আমি মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে (ভিসি) সিভিল রিভিশন মামলা দায়ের করি। আদালত শুনানি শেষ গত ২৬ ফেব্রুয়ারী ১৩৮/২০১৯ নং মামলার অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেন। উচ্চ আদালতের আদেশের কপি সহ লিখিত ভাবে ধুনট ইউএনও এবং (ওসি) সাহেবের নিকট আইনি সহযোগীতা চেয়ে কোন প্রতিকার পাইনি।

আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ পারলক্ষীপুর সুলতান হাটা সমিতির সাধারন সম্পাদক হারেজ আলী বলেন, প্রশাসন হস্তক্ষেপ না করায় সরকার ও আমার সমিতির সদস্যরা আর্থি ক্ষতিভাবে গ্রস্থ হচ্ছে এবং ওই জলমহলটি নিয়ে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এবিষয়ে ধুনট থানার (ওসি) কৃপা সিন্ধ বালা বলেন, পুলিশের করার কিছুই নাই।

জলমহালের বিষয়টি দেখভাল করার দায়িত্ব ইউএনও। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইউএনও সঞ্জয় কুমার মহন্ত বলেন, যার পেশীশক্তি নাই তাদের জলমহালের দায়িত্ব নেওয়ার দরকার ছিল না। আমার পক্ষে জলমহল দখল করে দেওয়া সম্ভব না।

Facebook Comments Box

Posted ৪:৪৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২১

Alokito Bogura। সত্য প্রকাশই আমাদের অঙ্গীকার |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক :

এম.টি.আই স্বপন মাহমুদ

প্রকাশক: তৃষা মাহমুদ

বার্তা সম্পাদক: এম.এ রাশেদ

বার্তাকক্ষ যোগাযোগ:

০১৭৫০ ৯১১৮৪৫, ০১৬১০ ৯১১৮৪৫

ইমেইল: alokitobogura@gmail.com (নিউজ)

ইমেইল: mtishopon@gmail.com (বিজ্ঞাপন)

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
''আলোকিত বগুড়া'' সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক বগুড়া থেকে প্রকাশিত।
error: Content is protected !!